মিরসরাইয়ে দেশের বৃহত্তম আইটি পার্ক করবে বেজা

88
শেয়ার
প্রতিকি ছবি

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে দেশের সর্ববৃহৎ আইটি পার্ক প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে। মিরসরাইয়ের ইছাখালী এলাকায় প্রকল্পটিতে অর্থায়ন করবে ভারত।

ভারত সরকারের দেয়া ৯ কোটি ডলার দিয়ে বেজা এ মিরসরাইয়ে আইটি পার্ক করবে। এ জন্য তারা এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে ৫০০ একর জমি বরাদ্দ দেবে। পাশাপাশি ঢাকায়ও একটি আইটি পার্ক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেজা।

সফটওয়্যার তৈরি, গবেষণা ও উন্নয়ন, তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য উৎপাদন, একটি আন্তর্জাতিক মানের তথ্যপ্রযুক্তি ইনস্টিটিউটসহ তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রয়োজনীয় সব কিছুই থাকবে আইটি পার্কে। আইটি পার্ক প্রতিষ্ঠার জন্য বেজা ও হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের মধ্যে গত বছরের অক্টোবর মাসে সমঝোতা চুক্তি সই হয়।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী জানান, মিরসরাইয়ের আইটি পার্ক নিয়ে বৃহৎ পরিসরে চিন্তা করছে সরকার। তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবকিছু নিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ আইটি ভিলেজ প্রতিষ্ঠা করতে চায় সরকার।

প্রসঙ্গত, মিরসরাই উপকূলজুড়ে চলছে দেশের সর্ববৃহৎ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মানের কাজ। মিরসরাইতে বেজা ইতিমধ্যে ১০ হাজার একর জমি অধিগ্রহণ করেছে। সেখানে ৩০ হাজার একর জমিতে অর্থনৈতিক অঞ্চল করার পরিকল্পনা রয়েছে বেজার। বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এটি দৃশ্যমান হবে পুরোপুরি।

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে মাত্র ৭০ কিলোমিটার দূরে মিরসরাই উপকূলীয় এলাকায় পরিকল্পিত শিল্পশহর গড়ে তোলার কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালে। প্রথম ধাপে ৫৫০ একর জমিতে চলছে ভূমি উন্নয়ন, ওই এলাকায় যাওয়ার সড়ক নির্মাণ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক হয়ে চারলেনবিশিষ্ট সংযোগ সড়ক নির্মাণ ও প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে বেড়িবাঁধ পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার চারলেন বিশিষ্ট সংযোগ সড়ক নির্মাণকাজ করছে সরকারের সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল এলাকায় শিল্প কারখানার পাশাপাশি এখানে গড়ে তোলা হবে নয়নাভিরাম পর্যটনকেন্দ্র।

মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১৭ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছে চীন। ভারত ইতোমধ্যে আইটি পার্ক করতে ৭২০ কোটি টাকা বিনিয়োগের ব্যাপারে নিশ্চিত করেছে।

মন্তব্য করুন

comments