সীতাকুণ্ডে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় এসআই সহ তিনজন প্রত্যাহার

42
শেয়ার

সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীতে গতরাতে গ্রামবাসীর সাথে সংঘর্ষে গুলি চালিয়ে একজন নিহত ও আরো দুজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় দায়ী এক সাব ইন্সপেক্টরসহ (এসআই)সহ ৩ জনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সাইফুল আলম (১৮) নামে ওই তরুণ নিহত হওয়ার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নূরে আলম মিনা। আজকের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রত্যাহার করা তিনজন হচ্ছে সীতাকুণ্ড থানার এসআই নাজমুল হুদা, কনষ্টেবল আবুল কালাম, আনসার সদস্য ইসমাইল হোসেন।

জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারী) সকালে পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা ভাটিয়ারী এলাকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি গ্রামবাসী এবং এলাকার জন প্রতিনিধি, নিহত ও আহতদের পরিবারের সাথে কথা বলেন।বর্তমানে ঘটনাস্থলে থমতমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ, গতকাল বুধবার রাত ৯ টার সময় সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী এলাকার তেলী পাড়ায় সাদা পোশাকে আসামী ধরতে গেলে পুলিশের সাথে গ্রামবাসীর বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় পুলিশ গ্রামবাসীর উপর গুলি চালালে সাইফুল ইসলাম নামে এক যুবক নিহত হয়। আহত হয় আরো দুইজন। আহতরা বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

ঘটনার পরপরই বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে ব্যাপক যানবাহন ভাঙচুর করেছে। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে অবরোধ তুলে নেয়া হয়।

স্থানীয়রা জানান, বেশ কিছুদিন ধরে সাদা পোশাকে পুলিশ আসামী ধরার নামে সাধারণ জনগনকে হয়রানি করে আসছে। গত ১২ জানুয়ারী একই ইউনিয়নের মির্জানগর জেলেপাড়ায় সাদা পোশাকে গিয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানার তিন এসআই কয়েজক জেলেকে আটক করা চেষ্টা করলে এলাকাবাসীর সাথে তাদের সংঘর্ষ বেধে যায়।

মন্তব্য করুন

comments