চিটাগংয়ের মালিকানা নিতে প্রস্তুত মেয়র নাছির

233
শেয়ার

আগামী বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের মালিকানায় থাকার ব্যাপারটি অনেকটাই নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র এবং বিসিবি পরিচালক আ জ ম নাছির। এবারের বিপিএলে বন্দর নগরীর দলটির পারফরম্যান্সে হতাশ তিনি। দল গঠনে আন্তরিক ছিলো না ফ্র্যাঞ্চাইজিটির বর্তমান কর্ণধার, এমন মতও তার। বিষয়গুলো নিয়ে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে আলোচনা করবেন বলে জানান আ জ ম নাছির।

জনসংখ্যায় দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিভাগ চট্টগ্রাম। বিপিএল ক্রিকেটে বন্দর নগরীর প্রতিনিধিত্ব করছে চিটাগং ভাইকিংস। সমর্থন কিংবা পারফরম্যান্সের দিক থেকেও সবার প্রত্যাশা ছিলো ভালো কিছুর। কিন্তু এ আসরে সবার আগেই বিপিএল রেস থেকে বিদায় নিয়েছে চিটাগং ভাইকিংস। তাও আবার সাগরিকার গ্যালারি ভরা দর্শকদের সামনে।

বিপিএলের শুরু থেকে চট্টগ্রামের দলটির ছিলো দারুণ পারফরম্যান্স। ২০১৩ সালে মাহমুদুল্লাহর নেতৃত্বে খেলেছে ফাইনালে। হয়েছে রানার আপও। কিন্তু গেলো দুই আসর ধরে মাঠে খেলায় নড়বড়ে দলটি। এবার চট্টগ্রামের লোকাল বয় তামিম ইকবালকেও ধরে রাখতে পারেনি ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। যা নিয়ে আক্ষেপ আর ক্ষোভ চট্টলাবাসীর। যার সাথে সুর মেলালেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছিরও।

‘চট্টগ্রামের একটা টিম, এখানকার দর্শকদের দুর্বলতা (টান) থাকবে এটাই স্বাভাবিক, মাটির প্রতি সবারই টান থাকে। তারপরেও চিটাগং ভাইকিংস ভালো করলে সবার মধ্যে হয়তো একধরণের প্রশান্তি কাজ করতো। সেটা হয়তো এখন ম্লান হয়ে গেছে। চিটাগংয়ের ঘরের মাঠ হিসেবে প্রত্যাশা ছিলো যে তারা এখানে ভালো করবে কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ভালো করতে পারেনি।’

চিটাগং ভাইকিংসের মালিকানায় নেই চট্টগ্রামের স্থানীয় কেউ। যার ফলে দল গঠনে আন্তরিকতার অভাব রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। তবে, চট্টলাবাসীকে আশার কথা শুনিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির। সামনের আসর থেকে মালিকানা নিতে চান দলটির। বিষয়টি নিয়ে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে আলোচনাও এগিয়েছে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির বলেন, ‘মালিকানা পরিবর্তন করতে চান, বা হস্তান্তর করতে চান তাহলে আমি, আকরাম খান- আমরা অবশ্যই রাজি। আমাদের আরও বেশ কয়েকজন ক্রীড়া সংগঠক আছেন। আমরা দীর্ঘদিন ধরে খেলার সঙ্গে আছি, আমদেরও দায়বদ্ধতা আছে চিটাগংয়ের প্রতি, অঙ্গীকারও আছে। আমরা মালিকানা নেয়ার পক্ষে। এটা শুধু বিপিএলে খেলার জন্য না। আমাদের পরিকল্পনা আছে যে, এখানে বেশ কিছু নতুন খেলোয়াড় তৈরি করবো।’

দলটির মালিকানা স্থানীয়দের হাতে গেলে পুরো দলকে নতুন করে সাজানো হবে। এখন পর্যন্ত বিপিএল শিরোপা স্বাদ না পাওয়া ফ্র্যাঞ্চাইজিটি হবে শিরোপার দাবিদার, এমনটাই মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।-সময়নিউজ

মন্তব্য করুন

comments