X

আইসিইউ রোগীকে পার্ক বয়েজের সহযোগীতা প্রদান

আইসিইউ এর বেডে চামেলি

বিগত প্রায় ২০ মাস আগে নোয়াখালী কোম্পানিগঞ্জ বসুরহাট এলাকায় ফায়ার ব্রিগেডের সামনে স্কুল থেকে ফেরার পথে সিএনজি এবং বাসের মধ্যকার একটি সংঘর্ষে দুর্ঘটনায় রিহাম আফসানা চামেলি(২০) মারাত্মক ভাবে আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আই,সি,ইউ বিভাগে ভর্তি হয়। সেই হতে আজোবধি সে আই,সি,ইউ তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।পরিবারে্র আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় তার পরিবার ঠিকমতো মেয়ের নিউট্রেশন এবং ঔষধের খরচ মেটাতে হিমসিম খাচ্ছেন।

পার্ক বয়েজ ফাউন্ডেশন নামের চট্টগ্রামের একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান খবর পেয়ে তাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে। তারা রোগীর খোঁজখবর নিয়ে তাকে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, তার অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি আজ ২রা মে ২০১৭ তারিখে রোগীর মায়ের কাছে কিছু টাকা তুলে দেয়, এবং মাসে মাসে তারা তার চিকিৎসা ব্যয় বহন করবে বলে অংগীকার করে।

সেসময় পার্ক বয়েজ ফাউন্ডেশনের কিছু সদস্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন, তারা হচ্ছেন ফেরোজ ডেভলাপমেন্ট লিমিটেড এর কর্ণধার এবং সদ্য প্রয়াত জেলা পরিষদের সদস্য, মালয়েশিয়ান আওমালীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ড. মাহমুদ হাসান এর মেজো ছেলে সোহেল মাহমুদ এবং ছোট ছেলে আশরাফ মাহমুদ, কর্ণফুলী ডিস্ট্রিবিউশনের প্রোপাইটর তারেক রেজা, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভারসিটির ফার্মেসী ডিপার্টমেন্ট এর হেড অনিন্দ্য কুমার নাথ, বেনভিউ ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড এর কর্ণধার আনিসুর রহমান, সী-ওয়েজ বন্ডেড ওয়্যারহাউজ এর এক্সিকিউটিভ ও সেলস অপারেশনের জুলকারনাইন সিকদার, গার্মেন্টস গ্যালারীর ডিরেক্টর সামিউল্লাহ চৌধুরী, দৈনিক আজকের চট্টগ্রামের স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ সাইফুল আলম, এবং চমেক হাসপাতালের অফিস সহকারী মো: আব্দুল খালেক, জুলফিকার ইসলাম এবং ঝন্টু দে।

এছাড়াও আমেরিকা প্রবাসী মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম মেহরাব ব্যক্তিগত ভাবে আর্থিক অনুদান প্রদান করে পার্ক বয়েজ ফাউন্ডেশনের সাথে অনুদানে অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য পার্ক বয়েজ ফাউন্ডেশন একটি সেবামূলক ভিন্নধর্মী প্রতিষ্ঠান যা ২০১১ থেকে বিভিন্ন সেবামূলক কাজে অনুদান দিয়ে আসছে, প্রতিবছর তারা গরীব, অসহায় লোকদের সাহায্য সহযোগীতা করে থাকে। বিগত বছরগুলোতে প্রতিষ্ঠানটি ঘূর্ণিঝড় আক্রান্ত মানুষকে সহায়তা,টাকার অভাবে চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত রোগীদের সহায়তা সহ আরো বিভিন্নভাবে তারা সহযোগীতা প্রদান করে আসছে।

মন্তব্য করুন

comments