৩ ঘন্টা ধরে তালাবদ্ধ চমেক হাসপাতালের মেইন গেইট

432
শেয়ার

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের মূল ফটক তালাবদ্ধ ছিলো ৩ ঘন্টা ধরে।এসময় চমেকের প্রধান গেইট দিয়ে রোগীসহ কোন লোকজন ও যানবাহন প্রবেশ করতে পারেনি। এতে প্রধান গেইটে মানুষের ভীড় লেগে যায়। পরে দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ তালা ভেঙ্গে গেইট খুলে দিয়েছে।দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে রোগীদের বহনকারী গাড়িসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল চমেক হাসপাতালে প্রবেশ স্বাভাবিক হয়েছে।

মূল ফটক বন্ধ করে দেওয়ার পর খোলা ছিলো একমাত্র জরুরি বিভাগের ছোট প্রবেশপথটি।

কে বা কারা কেন তালা দিয়েছে তার আসল কারণ জানা না গেলেও সম্প্রতি চিকিৎসকদের দুই গ্রুপে সংঘাতের জেরে এই ফটক বন্ধের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

মূল ফটকের সঙ্গে থাকা ছোট দুটি ফটকেও তালা দেওয়া হয়েছে।এতে রোগীদের বহনকারী গাড়িসহ সব ধরনের পরিবহন চমেক হাসপাতালে ঢুকতে যেমন বেগ পেতে হয়েছে তেমনি বিপাকে পড়তে হয়েছে রোগী, তাদের স্বজন এবং হাসপাতালের চিকিৎসক-কর্মকর্তাদের।

চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা সকাল ৯টার দিকে মূল গেইটে তালা দিয়ে চাবি নিয়ে চলে গেছে। কারা তালা দিয়েছে সেটা কেউ বলতে পারছে না। সকাল ৯টার দিকে আমরা ঘটনা জেনেছি। পরে তালা ভেঙ্গে বেলা ১২টার দিকে গেইট খুলে দিয়েছি।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জালাল উদ্দিন জানান, যে কোন ধরণের সংঘাতের আশঙ্কায় সাধারণ ছাত্ররা গেটে তালা দিয়েছিল। তবে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খুলে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে গত সোমবার (২০ নভেম্বর) নগরীর গোলপাহাড় মোড়ে চিকিৎসকদের দ্বন্ধের জেরে চমেক ছাত্রলীগ ও এমইএস কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর থেকে চমেক ক্যাম্পাসে উত্তেজনা চলছে। মঙ্গলবার ইন্টার্নি চিকিৎসকরা ঘটনার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এসময় তারা কর্মবিরতি পালন ও ক্লাশ বর্জন কর্মসূচির হুমকি দেয়।

 

মন্তব্য করুন

comments