চট্টগ্রাম বন্দরে নতুন কন্টেইনার ইয়ার্ড উদ্বোধন

193
শেয়ার
চট্টগ্রাম বন্দর। ছবিঃ সংগৃহিত

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরে নতুন একটি কন্টেইনার ইয়ার্ড উদ্বোধন হয়েছে।বন্দরের নিজস্ব ১০ একর জমির ওপর‘সাউথ কন্টেইনার ইয়ার্ড’নামে নতুন এই কন্টেইনার ইয়ার্ডের নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৪৪ কোটি টাকা।

রোববার দুপুরে নগরীর পতেঙ্গা এলাকায় নতুন এ কন্টেইনার ইয়ার্ড উদ্বোধন করেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাহজাহান খান।

নতুন ইয়ার্ডে প্রায় সাড়ে তিন হাজার কন্টেইনার রাখা সম্ভব হবে বলে জানান বন্দর কর্মকর্তারা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য এম এ লতিফ ও ইসরাফিল আলম, চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম খালেদ ইকবাল, কাস্টমস কমিশনার ড. এ এ কে এম নুরুজ্জামান প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌপরিবহনমন্ত্রী বলেন, বন্দরের ৭ নম্বর খালের কাছে তৈরি করা হয়েছে আধুনিক এই কন্টেইনার ইয়ার্ড। এখানে রাখা যাবে সাড়ে তিন হাজার কন্টেইনার। নতুন কন্টেইনার ইয়ার্ডে হ্যান্ডিংয়ের জন্য আনা হবে আরো নতুন যন্ত্রাংশ।

তিনি বলেন, ‘বন্দরের সক্ষমতা না বাড়লে এত বিপুল সংখ্যক কন্টেইনার পরিবহন হত না।তবে বন্দরে যেভাবে সক্ষমতা বৃদ্ধি হওয়ার কথা ছিল আমরা সেভাবে পারিনি। শতভাগ হয়ত পারিনি। তবে প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।’এ জন্য পতেঙ্গা, লালদিয়া ও বে টার্মিনাল প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলার কথা জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার আগে মংলা সমুদ্র বন্দর সাড়ে ১১ কোটি লোকসানে ছিল। ২০১৬ সাল পর্যন্ত মংলা বন্দরে লাভ হয়েছে ৭০ কোটি টাকা। সাড়ে ১১ কোটি টাকা লোকসান পরিশোধ করে আমরা ৭০ কোটি টাকা লাভ করি। পদ্মা সেতু হওয়ার পরে এই বন্দরের কার্যক্রম আরো বাড়বে। আমরা আরেকটি সমুদ্র বন্দর করেছি পায়রা সমুদ্র বন্দর। এ বন্দরে ইতিমধ্যে ১১টি জাহাজ খালাস হয়েছে। রাজস্ব আয় অনেক বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

নতুন কন্টেইনার ইয়ার্ডের ফলে চট্টগ্রাম বন্দর আমদানি রপ্তানি বাণিজ্যে বাড়তি চাপ সামলাতে প্রস্তুত বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

মন্তব্য করুন

comments