মিরসরাইয়ে যুবকের গলা কাটা লাশ উদ্ধার

36
শেয়ার

মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থানার সোনাপাহাড় এলাকায় মোহাম্মদ ফারুক (৩৪) নামে এক যুবকের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কেরপুলিশ বারইয়ার হাট উত্তর সোনা পাহাড় এলাকার মঈন উদ্দিন পেট্রল পাম্পের সামনে মহাসড়কের পশ্চিম পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

নিহত ফারুক বা‌রৈয়ারহাট পৌরসভার (উত্তর সোনা পাহাড়) ২নং হিঙ্গুলী ইউনিয়নের মে‌হেদী নগর গ্রামের কালাম মিয়া বাড়ীর সুজাউল হকের পুত্র বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় পুলিশ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের সাবেক স্ত্রীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। নিহতের পিতা সুজাউল হক এ ঘটনার জন্য তার ছেলের (সাবেক) স্ত্রী ফেনী জেলার ছাগল নাইয়া উপজেলার গোপাল ইউনিয়নের জেসমিন আক্তার সোনিয়াকে দায়ী করছেন।

এসময় তিনি বলেন, তার ছেলে স্থানীয় বারইয়ারহাট বাজারে জনৈক রুহুল আমিন সওদাঘরের কাপড়ের দোকানে বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করত। তার স্ত্রীর সাথে প্রায় ১ বছর পূর্বে ছাড়া ছাড়ি হয়ে যায়। তাদের সংসারে ছেলে সন্তান রয়েছে। ছেলেটি মায়ের সাথে থাকে। তার স্ত্রী পরিবার নিয়ে ঘটনাস্থলের পাশে বাসা ভাড়া করে থাকে। তাদের মধ্যে প্রায় সময় বিভিন্ন বিষয়ে যোগসাজশ ছিল। ঘটনার রাতে তার ছেলেকে মুঠোফোনে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রাখা হয়।

পুলিশ ধারণা করছে, তাকে কেউ হত্য করে ফেলে গেছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। তবে কে বা কারা কি কারণে ফারুককে হত্য করেছে তা জানা যায়নি।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদুল কবীর জানান, এলাকাবাসী দেয়া খবরের ভিক্তি আজ সকালে সোনাপাহাড় এলাকা থেকে একটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কিভাবে মৃত্যু হয়েছে জানি না। তবে তার শরীরে আঘাত এবং গলায় কাটা দাগ রয়েছে।এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments