চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে দুই জাহাজের সংঘর্ষ

39
শেয়ার

চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে দুটি জাহাজের সংঘর্ষে টিএসপি সারবাহী একটি বড় জাহাজের একাংশে ফুটো হয়ে পানি ঢুকতে শুরু করেছে।

শনিবার পতেঙ্গা এলাকায় মাল্টার পতাকাবাহী ‘এমভি ওরহান’ নামে একটি জাহাজ ভেলিজের পতাকাবাহী ‘এমভি মাইমেরি’ নামে জাহাজটিতে ধাক্কা দেয়।

এমভি মাইমেরির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এইচসি মেরিনের পরিচালক নুরুন্নবী ইমরান জানান, “মাইমেরি নোঙর করে সাগরে দাঁড়িয়ে ছিল। এসময় এমভি ওরহান নামে জাহাজটিও নোঙর করতে সেখানে আসে।

“ওরহান পেছন থেকে ঘুরে এসে মাইমেরিকে ধাক্কা দেয়। এতে মাইমেরির একটি হ্যাজ ফুটো হয়ে পানি ঢুকে যাচ্ছে।”

ইমরান জানান, নোয়াপাড়া ট্রেডার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানের জন্য মাইমেরি জাহাজটি লেবানন থেকে ৩৭ হাজার ৬৬১ মেট্রিকটন টিএসপি সার নিয়ে চট্টগ্রাম আসে।

চট্টগ্রাম বন্দরের সদস্য (প্রশাসন) জাফর আলম বলেন, পতেঙ্গার অদূরে দুটি জাহাজের সংঘর্ষে একটির হ্যাজ ফুটো হয়ে গেছে। সংশ্লিষ্ট শিপিং এজেন্ট এগুলোর বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে।

দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটির স্থানীয় প্রতিনিধি এইসসি মেরিন শিপিং এজেন্টের পরিচালক নূরন্নবী ইমরান প্রথম আলোকে বলেন, জাহাজটি নোঙর করার পর ইউরিয়া সারবাহী এমভি ওরহান নামের একটি জাহাজ এসে মাই মেরিকে ধাক্কা দেয়। একপর্যায়ে ওরহানের ধাক্কায় মাই মেরি জাহাজের ৫ নম্বর হ্যাচ (পণ্য রাখার জায়গা) ফুটো হয়ে যায়। দুপুরের মধ্যে ওই হ্যাচে পানি ঢুকে চার হাজার টন টিএসপি সার নষ্ট হয়ে যায়। টিএসপি সার আমদানিকারক নওয়াপাড়া ট্রেডার্স নামের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান।

বন্দরের পর্ষদ সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) মো. জাফর আলম বলেন, জাহাজটি ডোবেনি। তবে একটি হ্যাচে পানি ঢুকেছে। দুর্ঘটনার কারণে বন্দর জলসীমায় জাহাজ চলাচলে কোনো সমস্যা হচ্ছে না।

মন্তব্য করুন

comments