X

ফুটপাতে দোকানের মাল ভোগান্তি পথচারীদের

মুরাদপুর থেকে বিবিরহাটে যেতে হাটহাজারী সড়কের দু’পাশে চোখে পড়বে গাড়ির পুরাতন যন্ত্রাংশের অসংখ্য দোকান। রয়েছে আরো বিভিন্ন পণ্যের দোকানও। এসব দোকানিরা সড়কের ফুটপাত দখল করে মালামাল সাজিয়ে রেখেছে। পথচারীরা হাঁটার ফুটপাত না পেয়ে ঝুঁকি নিয়ে সড়কে চলাচল করছে। মুরাদপুর এলাকায় এই চিত্র দীর্ঘদিনের। পুলিশ এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় পথচারীরা প্রতিনিয়ত দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। সড়কে ফুটপাত পথচারীদের দুর্ভোগ নিয়ে দৈনিক পূর্বকোণে একাধিক রিপোর্ট হলেও কোনো প্রতিকার মিলছে না।

যানজটের কারণে মুরাদপুর থেকে বিবিরহাট পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়কে যানবাহনে পেরোতে সময় অতিবাহিত হয় ১৫ থেকে ২০ মিনিট। ক্ষেত্রবিশেষে সময় লাগে আরো বেশি। মুরাদপুর–হাটহাজারী সড়কে এ চিত্র একদিনের নয়, প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবধি পর্যন্ত। সড়কের দুই পাশে ফুটপাতে দোকানের মালামাল রাখার কারণে এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা আবদুর রউফ দৈনিক পূর্বকোণকে অভিযোগ করে বলেন, ‘মুরাদপুর থেকে বিবিরহাটমুখী সড়কের দুইপাশে গাড়ির পুরাতন যন্ত্রাংশের দোকানসহ বিভিন্ন পণ্যের দোকানের মালামাল ফুটপাত জুড়ে রাখার কারণে পথচারীরা নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে পারে না। ঝুঁকি নিয়ে সড়কে হাঁটে। এতে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হন পথচারীরা।’

স্থানীয় পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সাখাওয়াত হোসেন জানান, ‘এই এলাকায় পথচারীদের বড় দুর্ভোগ হচ্ছে দোকানিরা ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করে। এ কারণে ফুটপাত নিয়ে হাঁটতে পারে না পথচারীরা। দীর্ঘদিন ধরে এ অবস্থা চলে আসলেও পুলিশ কার্যত কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। ’
এ ব্যাপারে ৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মোবারক আলী দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘দোকানের মালামাল ফুটপাতে রাখার কারণে পথচারীরা সড়কে নেমে চলাফেরা, ভাসমান ভ্যান গাড়িতে কাঁচাবাজার বিক্রি, মোড়ে ফ্লাইওভারে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি এবং অনুমোদনহীন টেম্পুর দৌরাত্ম্যের কারণে মুরাদপুর মোড় থেকে রেল ক্রসিং পর্যন্ত যানজট লেগে থাকে। এ ব্যাপারে দফায় দফায় পদক্ষেপ নিয়েছি। কিন্তু পরবর্তীতে ফুটপাতগুলো পুনরায় দখল হয়ে যায়।’

দৈনিক পূর্বকোণ

মন্তব্য করুন

comments