X

বন্যার প্রভাবে চট্টগ্রামের সবজি বাজার চড়া

ছবিঃ সংগৃহিত

টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের প্রভাব পড়েছে চট্টগ্রামের সবজি বাজারে। ৬০ থেকে ৭০ টাকার নিচে কোনো সবজি মিলছে না।

ফলে সাধারণ মানুষের এখন নাভিশ্বাস উঠছে। তবে মোটামুটি স্থির আছে মাছের দাম এবং কমেছে ব্রয়লার মুরগির দাম।
তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হয় এমন সবজিও অতিরিক্ত দামে বিক্রি করা হচ্ছে। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা উত্তরবঙ্গের বন্যার অজুহাত দিয়ে সবজি বেশি দামে বিক্রি করছে। কাঁচা সবজির বাজার নিয়ন্ত্রণে না থাকায় ইচ্ছা মাফিক দাম বাড়ানো হচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা বলেন, চট্টগ্রামের বাজারে করলা ও চিচিঙ্গা আসে রাঙামাটি থেকে, কাকরোল ও মরিচ আসে সীতাকুণ্ড-মিরসরাই থেকে। তাছাড়া সবজি দেশের অন্যান্য জেলা থেকে আসছে। কিন্তু উত্তরবঙ্গের প্রায় জেলায় বন্যার পানি উঠছে। অনেক সবজি ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সরবরাহ কমেছে। বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাওয়া সবজির মধ্যে বেশিরভাগই নওগাঁ, যশোরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আসা।

শুক্রবার নগরীর প্রধান কাঁচাবাজারে প্রতিকেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা, তিত করলা ৭০ টাকা, কাকরোল ৬০, ফুলকপি ৮০, বাঁধাকপি ৯০, কাঁচা মরিচ ১২০, চিচিঙ্গা ৬০, ঝিঙ্গা ৭০, আলু ২০, টমেটো ১২০ টাকা, পিঁয়াজ ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। তবে দুই সপ্তাহ আগেও প্রতিটি সবজির দাম ১৫ থেকে ২০ টাকা কম ছিল।

বক্সির হাজারে সবজি বিক্রেতা করিম উদ্দিন বলেন, বন্যায় ক্ষেত্র ও সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অন্য জেলা থেকে সবজি কম আসছে। তাই এখন সবজির দাম একটু বেশি। বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সবজির সরবরাহ বাড়বে। তখন সবজির দাম কমবে।

এদিকে, বাজারে বিভিন্ন প্রকারের মাছের দাম স্থির আছে। বাজারে প্রতি কেজি রুই মাছ বিক্রি হয় ১৮০ থেকে ২০০ টাকা, কাতাল মাছ ২০০ টাকা, তেলাপিয়া মাছ ১৩০ টাকা, লইট্রা মাছ ১০০ টাকা। তবে বাজারে গত কয়েকদিন ধরে ব্রয়লার মুরগির দাম কমছে। প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয় ১১৫ থেকে ১২০ টাকা। প্রতিকেজি সোনালি বিক্রি হয় ২৪০ টাকা।

মন্তব্য করুন

comments