অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে কোন ছাড় নেইঃ চসিক মেয়র নাগরিকদের নিজ নিজ জায়গা থেকে নিয়ম মেনে চলার আহবান

258
শেয়ার
ছবিঃ আর্কাইভ

চট্টগ্রাম নগরীর খালগুলো ঘিরে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ‘কঠোর অবস্থানে’ থাকবেন বলে কথা দিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

নগরীকে ক্লিন ও গ্রিন সিটিতে রুপান্তর করতে সিটি করপোরেশনের পাশাপাশি নাগরিকদেরও নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান চসিক মেয়র।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের একটি হোটেলে বাংলাদেশ সিমেন্ট, আয়রন অ্যান্ড স্টিল মার্চেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন মেয়র। তিনি বলেন, “সিটি করপোরেশনও তার দায়িত্ব পালন করবে। নগরীর খালগুলোর দুপাড়ে যে অবৈধ স্থাপনা ও দখল সেটি উদ্ধারে আমি কঠোর অবস্থানে থাকব।”

ক্লিন ও গ্রিন সিটিতে রুপান্তরে ব্যবসায়ী সমাজসহ নগরীর সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামণা করে তিনি বলেন, “করপোরেশনের পক্ষে সবকিছু তখনই সম্ভব হবে, যখন নাগরিকরা সচেতন হবেন, সহযোগিতা করবেন এবং সমাজপতিরা এগিয়ে আসবেন।”

মেয়র বলেন, সাধারণ নাগরিকদের সচেতনতার কারণে উন্নত দেশগুলোতে ট্রাফিক পুলিশের দরকার হয় না।

“তাদের সচেতনতার কারণে ট্রাফিক পুলিশকে আমাদের দেশের মত রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় না। কারণ তারা সবাই নিয়ম মেনে চলে। নাগরিকরা নিজ নিজ জায়গা থেকে নিয়ম মেনে চললে যানজট ও জলাবদ্ধতার মতো সমস্যাগুলো থাকবে না।”

বাংলাদেশ সিমেন্ট, আয়রন অ্যান্ড স্টিল মার্চেন্টস অ্যাসোসিয়েশনকে দেশের নির্মাণ শিল্পে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানান মেয়র। ভবিষ্যতে এ খাতের সাথে জড়িত ব্যবসায়ীদের যে কোন ধরনের সমস্যা সমাধানে আরো বেশি উদ্যোগী হওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৬ আগস্ট নগরের মহেশখাল ও গয়নার ছড়ার দুপাড়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মধ্য দিয়ে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। উপস্থিত ছিলেন চসিকের প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সনজিদা শরমিন প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

comments