পটিয়ায় উদ্ধারকৃত ডিম আসল না নকল পরীক্ষার নির্দেশ আদালতের

103
শেয়ার

গত শুক্রবার রাতে পটিয়ায় কামাল বাজারের শাহ আমির পোল্ট্রি ফার্ম নামের একটি দোকান থেকে প্লাস্টিক জাতীয় পদার্থ দিয়ে তৈরি প্রায় ৩ হাজার নকল ডিম উদ্ধার করা হয়।

পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নেয়ামতুল্লাহ জানান, এ ঘটনায় দুই ডিম ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার (৩০ জুলাই) পটিয়া থানা পুলিশ ওই ডিমগুলো পরীক্ষার জন্য আদালতে আবেদন করে।

পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার পটিয়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. মহিদুল ইসলাম জব্দ করা ডিম পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

পটিয়া থানার পুলিশ জানায়, ‘নকল ডিম’ নিয়ে সন্দেহের সূত্রপাত হয় গত শুক্রবার রাতে। ওই দিন বোয়ালখালী আদালতের বিচারক মো. মনির হোসেন উপজেলা সদরের কামাল বাজারের শাহ আমির পোলট্রি ফার্ম নামের দোকান থেকে এক ডজন ডিম কেনেন। এসময় তার স্ত্রী নাস্তা তৈরি করতে গেলে একটি ডিম ভাঙার পর ডিমের ভেতরের অংশ অস্বাভাবিক মনে হয়।

এভাবে আরও দুটি ডিম ভাঙার পর দেখা যায় কুসুম ঘোলা। ডিমে গন্ধ নেই। সন্দেহ হওয়ায় ডিমের ভাঙা খোসাগুলো গরম তেলে দেওয়া হয়। দেখা যায় খোসা তেলে গলে গেছে।

বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হলে ওই বিচারক থানায় অভিযোগ করেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতে কামাল বাজারের ওই দোকানে গিয়ে প্রায় তিন হাজার ডিম জব্দ করে পুলিশ। পাশাপাশি ওই দোকানদার আরমান ও ডিম সরবরাহকারী বেলাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়।

নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আমির প্লোট্রি ফার্ম দোকানের মালিক জানান, ডিমগুলো রামু উপজেলার এস এইচ পোল্ট্রি অ্যান্ড ফিড নামের একটি প্রতিষ্ঠান থেকে পাইকারি কিনেছেন। দীর্ঘদিন ধরে ওই প্রতিষ্ঠান থেকে পাইকারি ডিম কিনে দোকানে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে ডিমগুলো ভেজাল কিনা এ বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না বলে জানান।

চট্টগ্রাম জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. রিয়াজুল হক জানান, ডিমগুলো পরীক্ষার পর বলা যাবে সেগুলো নকল কি না। এর আগেও নকল ডিমের অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে এর আগে দেশে নকল ডিমের কথা বিভিন্ন সময়ে শোনা গেলেও কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি।

পটিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আফছার আল মামুন বলেন, দোকানদার আরমান ও ডিম সরবরাহকারী বেলাল উদ্দিনকে গ্রেফতার করে তাদের নামে বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জব্দ ডিমগুলো পরীক্ষার পর তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

comments