জলাবদ্ধতা থেকে নগরবাসীকে মুক্তি দিতে চান মেয়র

54
শেয়ার
ছবিঃ আর্কাইভ

নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে হারিয়ে যাওয়া খালগুলো উদ্ধার করে নগরবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে চান চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন

সোমবার নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে আয়োজিত সুধী সমাবেশে নগরের সামগ্রিক জলাবদ্ধতা নিরসনের বিষয়টি সময়সাপেক্ষ ও চ্যালেঞ্জিং জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও নগরবাসীর সহযোগিতায় এই সমস্যা থেকে নগরবাসীকে মুক্তি দেওয়া হবে।’

নগরীর খালগুলো উদ্ধারে ডিজিটাল সার্ভে চলছে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘জরিপ শেষ হতে একটু সময় লাগবে। আরএস’র ভিত্তিতে আমরা এটা করছি। জরিপ শেষ হলে আমরা সিদ্ধান্ত পাব। তারপর আমরা অ্যাকশনে যাব।’

নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনে আরএসের ভিত্তিতে নগরের খালগুলোর সীমানা নির্ধারণ করে দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘আমরা উচ্ছেদে যাব, উচ্ছেদের ক্ষেত্রে আমরা কাউকে ছাড় দেব না।’

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) অপরিকল্পিত উড়ালসড়ক নির্মাণের কারণে কিছু এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে উল্লেখ করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ফ্লাইওভারের পিলার দিয়ে বহদ্দারহাট ও রেল ষ্টেশন এলাকায় নালা বন্ধ করে দেয়ার কারনে জলাবদ্ধতা আশংকাজনকভাবে বেড়ে গেছে।

নগরের সব এলাকা আলোকিত এবং রাস্তা পিচঢালা করার পরিকল্পনার কথা জানান মেয়র। তিনি বলেন, ‘নগরীতে ৩০০ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক আছে। আমার মেয়াদকালে সব সড়ক কার্পেটিংয়ের আওতায় চলে আসবে। আমার মেয়াদকালে পুরো নগরীকে এলইডি লাইটের নিয়ন্ত্রণে আনব।’

সুধী সমাবেশে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম মেয়রকে জলাবদ্ধতা ও যানজট নিরসনে বেশি গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানান।

সুধী সমাবেশে সাংসদ ওয়াসিকা আয়শা খানম, সাবিহা মুছা, সিইউজে’র সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শামসুল হক হায়দরী বক্তব্য রাখেন।

মন্তব্য করুন

comments