X

শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে দিয়াজকে: সিআইডি

ছবিঃ সংগৃহিত

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) চট্টগ্রাম অঞ্চলের সহকারী পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবীর জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর মরদেহে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন থাকার বিষয়টি উঠে এসেছে পুনঃময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে। একই সাথে দিয়াজের মৃত্যু ‘হত্যামূলক’ বলেও উল্লেখ আছে সেখানে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই ছাত্রলীগ নেতার দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হওয়ার পর এই তথ্য পাওয়া যায় সিআইডি থেকে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২০ নভেম্বরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ নম্বর গেইট এলাকার বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দিয়াজের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। দিয়াজ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি দিয়াজ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক ছিলেন।

লাশ উদ্ধারের পর দিয়াজের অনুসারী ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা দাবি করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের টেন্ডার নিয়ে জটিলতার জেরে দিয়াজকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া তার লাশ উদ্ধারের পর থেকে হত্যার সন্দেহের কথা বলে আসছিল তার পরিবার। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথম দফা ময়নাতদন্তে আত্মহত্যা বলা হলেও তা প্রত্যাখ্যান করে হত্যা মামলা করেন দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী।

গত বছরের ৪ নভেম্বর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা টিপু ও সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন চৌধুরীসহ ১০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী।

পরে আদালতের নির্দেশে দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের জন্য দিয়াজের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়। আদালতের নির্দেশে ১১ ডিসেম্বর দিয়াজের লাশ পুনঃময়নাতদন্ত করে ঢাকা মেডিকেলের চিকিৎসকেরা। প্রায় সাড়ে সাত মাস পর গত শনিবার পুনঃময়নাতদন্ত প্রতিবেদন তদন্ত সংস্থা সিআইডিকে দেয় ঢাকা মেডিকেলের ফরেনসিক বিভাগ।

মন্তব্য করুন

comments