X

ত্রিপুরা পাড়ায় ফের অসুস্থ হয়ে ১১ শিশু হাসপাতালে ভর্তি

সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরা পাড়ায় আরো ১১ শিশু গতকাল শুক্রবার (২৮ই জুলাই) জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

তারা সবাই জ্বরে আক্রান্ত হলেও হাম এ আক্রান্ত কিনা তা পরিক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

এর মধ্যে সাধারণ জ্বরে আক্রান্ত ৭ জনকে ফৌজদারহাটে এবং হামের লক্ষণ দেখা দেওয়া চারজনকে চমেকে ভর্তি করা হয়েছে।

সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এসএম নুরুল করিম রাশেদ বলেন, সকালে ত্রিপুরাপাড়ার ১১ শিশু অসুস্থ হলে জরুরি ভিত্তিতে তাদের ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি সংযুক্ত সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে পাঠানো হয়।

চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন আজিজুল রহমান সিদ্দিকী জানান, ‘সকালে সোনাইছড়ির ত্রিপুরা পাড়া থেকে ৫ শিশুকে ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি হাসপাতালে আনা হয়েছে। তাদের চিকিৎসা এবং পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। ত্রিপুরাপাড়ায় স্বাস্থ্যকর্মীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কোনো শিশু জ্বরে আক্রান্ত হলে কিংবা অসুস্থ হলে দ্রুত যেন ফৌজদারহাটে পাঠিয়ে দেওয়া হয়’।

এদিকে নতুন করে ১১ শিশু অসুস্থ হওয়ার খবরে জরুরী ভিক্তিতে ওই এলাকায় একটি মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে বলে জানান সিভিল সার্জন। তিনি বলেন, সর্তকতা হিসেবে মেডিকেল টিম পাঠিয়েছি। সব শিশুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে সীতাকুণ্ডের ত্রিপুরাপাড়ায় সংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে ৪ দিনের মাথায় ৯ শিশুর মৃত্যু হলে বিষয়টি লোকালয়ে জানাজানি হয়। পরে সাংবাদিক চিকিৎসকরা দুর্গম ত্রিপুরা পাড়ায় ছুটে যায়। এবং আক্রান্ত শিশুদের হাসপাতালে ভর্তি সহ প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া শুরু করে। প্রায় এক সপ্তাহ পর জানা যায় অজ্ঞাত রোগ নয় মূলত অপুষ্টি এবং হামের কারণেই শিশুরা আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে চিকিৎসাধীনবস্থায় গত ২৪ জুলাই সোমবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় নিপা নামে আরো এক শিশু।

এর পর থেকে আক্রান্ত হয়ে ১২১ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়। এরমধ্যে ১০৭ জন চিকিৎসাসেবা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। বর্তমানে চমেক হাসপাতালে ৯ জন এবং ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি) হাসপাতালে ১৬ জন হামে আক্রান্ত শিশু চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মন্তব্য করুন

comments